মেনু নির্বাচন করুন

দর্শনীয় স্থান

ক্রমিক নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
মনোমুগ্ধকর গোলাপ বাগান চট্টগ্রাম কক্সবাজার মহাসড়কের বরইতলী ইউনিয়নে প্রবেশ করার সাথে সাথে রাস্তার দুই ধারে প্রচুর গোলাপ বাগান লক্ষ্য করা যাবে। রাস্তার পূর্ব দিকে শুধু গোলাপ আর গোলাপের সমারোহ।
মাতামুহুরী নদী সিএনজি বা পদব্রজে
বরইতলী মৎস্য খামার বরইতলী ইউনিয়ন একতাবাজারের পশ্চিম পাশে অবস্থিত।
চিংড়ির ঘের চিংড়ির ঘেরের অবস্থান শাহারবিল ইউনিয়নে ০৯নং ওয়ার্ডের কোরালখালী এলাকায় । এই চিংড়ি ঘের দেখার জন্য প্রতি বছর দেশ-বিদেশ থেকে অনেক দর্শনাথীরা দেখতে আসে।প্রতি বছর এই চিংড়ি ঘের খেকে প্রচুর পরিমাণ বৈদশিক মুদ্রা আর্জন করে । যা থেকে দেশ ও সরকার প্রচুর মুদ্রা আয় করে।
বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক

বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কটি কক্সবাজার জেলা সদর থেকে ৪৮ কিলোমিটার উত্তরে এবং চকরিয়া থানা থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিণে,কক্সবাজার জেলা সদরের দক্ষিণ বন বিভাগের ফাসিয়াখালি রেঞ্জের ডুলাহাজারা ব্লকে অবস্থিত।দূরপাল্লার যে কোন বাস, সৌদিয়া পরিবহন, এস.আলম পরিবহন, সেন্টমাটিন পরিবহন, শ্যামলী পরিবহন, হানিফ পরিবহন,মর্ডাণ পরিবহনে করে কক্সবাজার যেতে হবে। আপনি চাইলে চট্টগ্রাম থেকেও যেতে পারেন। কক্সবাজার শহর থেকে সিএনজি চালিত অটোরিক্সা কিংবা মাইক্রোবাস অথবা পাবলিক বাসে করে যেতে পারেন সাফারী পার্কে।

মেদাকচ্ছপিয়া জাতীয় উদ্যান- পর্যটন কেন্দ্র(ইকোট্যুরিজম)

যাতায়াত ব্যবস্থাঃ
মেদাকচ্ছপিয়া জাতীয় উদ্যান পরিবেশ বান্ধব পর্যটন কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহসড়কের পাশেই অবস্থিত। ঢাকা-চট্টগ্রাম থেকে আসলে কক্সবাজারগামী বাসে করে সরাসরি স্পটেই (লোকাল নাম মেদাকচ্ছপিয়ার ঢালা) নামতে পারবেন। অথবা চকরিয়া বাস টার্মিনাল বা পুরাতন বাস স্টেশনে নেমে লোকাল গাড়িতে করে আসতে পারেন। এই রোডে মিনিবাস (চকরিয়া সার্ভিস) হাইয়েস, মাহিন্দ্রা ও ম্যাজিক গাড়ি যাতায়াত করে। দূরত্ব ১৭ কিলোমিটার এবং ভাড়া নিবে ২০-২৫ টাকা । আর কক্সবাজার থেকে আসলে কক্সবাজার বাস টার্মিনাল হতে কক্সবাজার টু চকরিয়া সরাসরি বাস সার্ভিস (কক্স স্পেশাল সার্ভিস ও সরাসরি টেকনাফ-কক্সবাজার স্পেশাল সার্ভিস) রয়েছে। অথবা মিনিবাস (চকরিয়া সার্ভিস), হাইয়েস এ করেও আসতে পারেন। দূরত্ব ৪২ কিলোমিটার এবং ভাড়া সরাসরির ক্ষেত্রে ৬০ টাকা ও মিনিবাস, হাইয়েস ৪০ টাকা নিবে।



Share with :

Facebook Twitter